http://csb24.com/id/85797/

ঢাকা, , শুক্রবার, ৩ জুলাই ২০২০

উখিয়ায় করোনাকালীন বাজার স্থাপন, মাঠের বেহাল অবস্থা

প্রকাশ: ২০২০-০৬-২৫ ২১:২৬:২৭ || আপডেট: ২০২০-০৬-২৫ ২১:২৬:২৭

নিজস্ব প্রতিবেদক: কক্সবাজারের উখিয়ায় করোনাকালীন বাজার স্থাপন করায় উপজেলা সদরের একমাত্র মাঠটির বেহাল অবস্থা হয়ে খেলাধুলা করার যোগ্যতা হারিয়েছে। ফলে স্কুল কলেজ পড়ুয়া শিক্ষার্থীসহ উঠতি যুব সমাজের নিয়মিত খেলাধুলা করতে না পারায় অসন্তোষ বিরাজ করতে দেখা গেছে ক্রীড়ামোদিদের মাঝে।

সরেজমিন জানা গেছে, চলমান বৈশ্বিক মহামারিতে করোনা প্রতিরোধে সাধারণ মানুষ যেন সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে নিত্যপণ্যের চাহিদা পূরণের লক্ষ্যে উপজেলা প্রশাসনের সিদ্ধান্তে কাঁচা বাজারকে উখিয়া সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের খেলার মাঠে স্থানান্তর করা হয়েছিল। পরবর্তীতে বাজার পুন: অবস্থানে নেয়া হলেও মাঠটির করুণ পরিণতি হয়েছে। এ পরিস্থিতিতে খেলার মাঠের উপর স্থাপিত অস্থায়ী দোকান ঘর সহ প্রয়োজনীয় সংস্কার করার দাবী তুলেছে স্থানীয়রা।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন খেলোয়াড় বলেন, মাঠের এই করুণ অবস্থা দেখলে খুব খারাপ লাগে। কেননা, খেলোয়াড়দের জন্য খেলার মাঠ হচ্ছে সেকেন্ড হোম। করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলায় এ মাঠটি ব্যবহার করা হয়েছিল। কিন্তু বাজার পুন: অবস্থায় ফিরিয়ে নেওয়ার বেশ কিছুদিন পরও মাঠের এ অবস্থা সত্যিই কষ্টদায়ক। যুব সমাজকে মাদক থেকে দূরে রাখতে মাঠটি দ্রুত সময়ের মধ্যে খেলাধুলার উপযোগী করার জন্য সংশ্লিষ্ট মহলের প্রতি জোর দাবী জানাচ্ছি।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে উখিয়া উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল মামুন শাহীন জানান, করোনা পরিস্থিতির কারণে খেলার মাঠকে কাঁচা বাজার হিসেবে ব্যবহার করেছে। এখন মাঠের অবস্থা খুবই নাজুক। ভারী বর্ষণ এবং শ্রমিকের অভাবে কাজ করা যাচ্ছে না। তবে কয়েক দিনের মধ্যে ক্রীড়া সংস্থার পক্ষ থেকে কাজ শুরু করার কথা জানান।

তিনি আরো বলেন, উপজেলা প্রশাসনের সহযোগীতায় আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংস্থার পক্ষ থেকে একটি মান সম্মত খেলার মাঠ তৈরী করার জন্য ফান্ড দেওয়া হয়েছে। এপ্রিল মাসের প্রথম সপ্তাহে কাজ শুরু করার কথা থাকলেও করোনা কালীন সময়ে শুরু করা যায়নি। পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে কাজ শুরু করবে। পর্যায়ক্রমে রত্নাপালং, হলদিয়াপালং, জালিয়াপালং, পালংখালীতেও একটি করে খেলার মাঠ করা হবে।

একই প্রসঙ্গে উখিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও রাজপালং ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর কবির চৌধুরী বলেন, উখিয়ার এই মাঠটিকে একটি আন্তর্জাতিক সাহায্যকারী সংস্থা মিনি স্টেডিয়াম নির্মাণ করার জন্য একটি ফান্ড দিয়েছে। করোনা পরিস্থিতি ও লকডাউন এর জন্য কাজ শুরু করা যাচ্ছে না। খুব শীঘ্রই তারা কাজ শুরু করার কথা রয়েছে। আশাকরি দ্রুত সময়ের মধ্যে একটি আধুনিক মানের খেলার মাঠ হবে।