ঢাকা, , বুধবার, ২৮ আগস্ট ২০১৯

গোবিন্দগঞ্জ-ভাদুরিয়া মহাসড়কে দুর্ভোগ চরমে, রাস্তা সংস্কার করছে অটো চালকরা

প্রকাশ: ২০১৯-০৭-১১ ১৮:২৭:৩৩ || আপডেট: ২০১৯-০৭-১১ ১৮:৩৯:২৩


ওসমান আলী, নবাবগঞ্জ (দিনাজপুর) সংবাদদাতাঃ দিনাজপুরের নবাবগঞ্জে দিনাজপুর-গোবিন্দগঞ্জ মহাসড়ক সংলগ্ন ভাদুরিয়া-গোবিন্দগন্জ সড়কে যাত্রীদের দুর্ভোগ চরমে পৌঁছেছে।

এ সড়কের অনেক অংশ খানাখন্দে ভরে গেছে। এই মহাসরকে রাস্তা বা ড্রেনের কোন পার্থক্য নাই। বিশেষ করে ভাদুরিয়া বাজারের চার মাথার পশ্চিম থেকে পূর্ব অংশে সড়কের অবস্থা বর্তমানে এতটাই শোচনীয় যে, সামান্য বৃষ্টিতেই পানি জমে চলাচল অসম্ভব হয়ে পড়ে। এ সড়কে চলাচলরত যানবাহনের চালক ও যাত্রী, পথচারী ও স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীদের দুর্ভোগের শেষ নেই। সামান্য বৃষ্টির পানিতে সড়কটি পুকুরে রূপ নেয় তখন তা পরিণত হয় মৃত্যু ফাঁদে।

সড়ক ও জনপথ বিভাগ (সওজ) তো বটেই, মানুষের দুর্ভোগ দেখেও তেমন নজর দেননি নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিরা। ফলে দুর্ভোগের পাশাপাশি প্রতিনিয়ত দুর্ঘটনার কবলে পড়ছে সাধারণ মানুষ।


সামান্য বৃষ্টির পানিতে তলিয়ে যায় ভাদুরিয়া-গোবিন্দগজ সড়কের বিভিন্ন অংশ। দুর্ঘটনার আশঙ্কায় যানবহন ধীরে ধীরে “চলাচল করছে। বৃষ্টির পানিতে রাস্তার দুইধারে যানজট দেখে স্থানীয়দের প্রশ্ন, রাস্তাটির সংস্কারের দায়িত্ব কার? স্থানীয়রা বলেন, সড়কটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এই সড়ক দিয়ে প্রতিদিন বাস, ট্রাক, হলার, মাইক্রো, সিএনজি অটোসহ হাজার হাজার যানবাহন চলাচল করে। মাঝে মধ্যে সওজ বিভাগের লোকজন ভাঙাচোরা ইট বিছিয়ে দিয়ে কোনো রকমে রাস্তাটির অস্থায়ী মেরামত কাজ করে চলে যায়। ফলে এক সপ্তাহ যেতে না যেতেই আগের অবস্থার চেয়েও ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে ওঠে রাস্তাটি। কয়েকজন বাস,ট্রাক, সিএনজি অটোরিকশা চালক বলেন, সড়কটিতে লোক দেখানো মেরামত করা হয়। ফলে দুই দিন যেতে না যেতেই আবারো একই অবস্থা।


দুর্ঘটনার ঝুঁকি মাথায় নিয়েই এ রাস্তা দিয়ে চলাচল করতে হয়। উল্লেখ্য, বাংলাদেশের অন্যতম বিনোদন কেন্দ্রগুলোর মধ্যে একটি দিনাজপুরের কান্তীজির মন্দির স্বপ্নপুরী। সেখানে এ রাস্তা হয়ে যাতায়াত করতে হয়। জরুরি ভিত্তিতে সড়কটি সংস্কার করার দাবি সর্বসাধারণের।