ঢাকা, , শনিবার, ২৪ আগস্ট ২০১৯

টেকনাফে তালিকাভূক্ত মাদক কারবারী বন্দুক যুদ্ধে নিহত

প্রকাশ: ২০১৯-০৫-১১ ২২:৩৬:০৯ || আপডেট: ২০১৯-০৫-১১ ২২:৩৬:১৪

হুমায়ূন রশিদ, টেকনাফ: টেকনাফে প্রাণরক্ষার্থে আত্নগোপনে থাকা তালিকাভূক্ত মাদক কারবারীসহ পুলিশী অভিযানে বন্দুক যুদ্ধের ঘটনায় এক মাদক কারবারী গুলিবিদ্ধ ও ৩জন পুলিশ আহত হওয়ার ঘটনা ঘটেছে। ঘটনাস্থল থেকে অস্ত্র, বুলেট ও ইয়াবা উদ্ধার করা হয়েছে।

পুলিশ সুত্রের দাবী, ১১মে রাত ১টারদিকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়সহ একাধিক সংস্থার তালিকাভূক্ত মাদক কারবারী টেকনাফ সদরের উত্তর নাজির পাড়ার সোলতান আহমদের পুত্র দুদু মিয়া (৩৮) কে নিয়ে টেকনাফ মডেল থানার একদল পুলিশ মুন্ডার ডেইল-মহেশখালীয়া পাড়া বীচ উপকূলে মাদক ও অস্ত্র উদ্ধার অভিযানে যায়। এসময় মাদক কারবারীর সহযোগী এবং পুলিশের মধ্যে বন্দুক যুদ্ধের ঘটনায় এএসআই সঞ্জিত দত্ত,নেজাম উদ্দিন ও কনস্টেবল ইব্রাহীম আহত হয়। কিছুক্ষণ পর মাদক কারবারী সহযোগীরা পালিয়ে গেলে ঘটনাস্থল হতে ৫টি দেশীয় অস্ত্র, ১৩ রাউন্ড কার্তুজ ও ৪ হাজার ইয়াবাসহ গুলিবিদ্ধ দুদু মিয়াকে অবস্থায় উদ্ধার করে। তাকে চিকিৎসার জন্য টেকনাফ উপজেলা সদর হাসপাতালে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

এই ব্যাপারে টেকনাফ মডেল থানার ওসি প্রদীপ কুমার দাশ জানান,নিহত ব্যক্তি একাধিক সংস্থার তালিকাভূক্ত মাদক কারবারী ও অর্ধডজন মামলার ফেরারী আসামী ছিল। পুলিশের মাদক ও অস্ত্র উদ্ধার অভিযানে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় হাসপাতালে মারা যায়। মৃতদেহ মর্গে প্রেরণ করে এই ব্যাপারে মামলার প্রস্তুতি চলছে।

উল্লেখ্য, নিহত তালিকাভূক্ত মাদক কারবারী মাদক বিরোধী অভিযান থেকে বাঁচতে এলাকা ছেড়ে স্ত্রী, ১ছেলে, ৪ মেয়ে নিয়ে পালিয়ে হ্নীলা পূর্ব পানখালী একটি ভাড়া বাসায় অবস্থান করছিল। সেখান থেকে আটক হয়ে মাদক ও অস্ত্র উদ্ধার অভিযানে বন্দুক যুদ্ধে গুলিবিদ্ধ হওয়ার পর হাসপাতালে মারা যায়।