ঢাকা, , রোববার, ১২ মে ২০১৯

কলেজ ভবন থেকে অলির ভাইয়ের নাম মুছে দিল ছাত্রলীগ

প্রকাশ: ২০১৯-০৩-০৯ ১৬:১৫:০৯ || আপডেট: ২০১৯-০৩-০৯ ১৬:১৭:৫৬

অনলাইন ডেস্ক: চট্টগ্রাম জেলার চন্দনাইশে আমানত ছফা বদরুন্নেছা মহিলা ডিগ্রী কলেজের নতুন একাডেমিক ভবন থেকে এলডিপি চেয়ারম্যান কর্নেল (অব.) অলি আহমদের বড় ভাই আলহাজ্ব আলী আহমদের নাম মুছে দিয়েছে চন্দনাইশ উপজেলা ও পৌরসভা ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা।

বর্তমান সরকারের দেওয়া ৪ কোটি টাকা ব্যয়ে ৪ তলা একাডেমিক ভবনে উপজেলার কোনো গুণীজন ও মুক্তিযোদ্ধার নামে নামকরণ না করায় ছাত্রলীগ নেতারা ক্ষুব্ধ হয়ে এ নামটি মুছে দিয়েছে বলে জানা গেছে।

শুক্রবার (৮ মার্চ) বিকেলে ওই ভবন থেকে কালো কালি দিয়ে নামটি মুছে দেন ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা।

জানা গেছে, ড. কর্নেল (অব.) অলি আহমদ যোগাযোগমন্ত্রী থাকাকালে উপজেলা সদরে তার বাবা আমানত ছফা ও মাতা বদরুন্নেছার নামে কলেজটি প্রতিষ্ঠান করেন।

২০১৮ সালে বর্তমান সংসদ সদস্য মো. নজরুল ইসলাম চৌধুরী প্রায় ৪ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত ৪ তলা একাডেমিক ভবনের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন।

কিন্তু কলেজ কর্তৃপক্ষ ভবনটিতে কোনো গুণীজন ও মুক্তিযোদ্ধার নামে নাম করণ না করে কর্নেল অলির বড় ভাই তৎকালীন বিএনপির সভাপতি আলী আহমদের নামে নামকরণ করেন। এরপর গত কিছুদিন ধরে ওই নামটি নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যাপক সমালোচনা শুরু হয়।

চন্দনাইশ পৌরসভা ছাত্রলীগ নেতা আবদুন নুর তুষার সাংবাদিকদের জানান, বর্তমান সরকার ৪ কোটি টাকা ব্যয়ে এই একাডেমিক ভবন নির্মাণ করে। কিন্তু সেখানে কোনো গুণীজন ও অথবা কোনো মুক্তিযোদ্ধার নামে নামকরণ না করে তার নিজের বড় ভাইয়ের নামে নামকরণ করেন। এতে এলাকার সাধারণ মানুষ ও ছাত্রলীগ নেতারা ক্ষুব্ধ হয়ে উঠায় নামটি মুছে দেওয়া হয়েছে। কলেজের একাডেমিক ভবনে এ রকম অযৌক্তিক নাম ব্যবহার কোনোভাবেই মেনে নেওয়া যায় না বলেও তিনি জানান।

উক্ত কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ শিপ্রা সিকদার সাংবাদিকদের জানান, একাডেমিক ভবনের নাম মুছে দেয়ার বিষয়টি তিনি পিয়নের কাছ থেকে শুনেছেন।

তিনি বলেন, কলেজ গভর্নিং বডির সিদ্ধান্ত মোতাবেক মরহুম আলী আহমদের নামে নতুন ভবনটির নামকরণ করা হয়।