ঢাকা, , সোমবার, ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

উখিয়ায় সাগরপথে পাচারকালে ২০ রোহিঙ্গা আটক

প্রকাশ: ২০১৯-০২-০৮ ২১:৪৬:০৭ || আপডেট: ২০১৯-০২-০৯ ০১:০৭:৫০

নিজস্ব প্রতিবেদক:
উখিয়ায় সাগরপথে পাচার কালে ২০ রোহিঙ্গা পুলিশের হাতে আটক হয়েছে। বৃহস্পতিবার ফিশিংবোটে করে অবৈধ পথে মালয়েশিয়া যাওয়ার প্রস্তুতির খবরে উখিয়া থানা পুলিশের একটি দল উপকূলীয় এলাকার ডেইলপাড়া গ্রামের মৃত আজিজুল হকের ছেলে আব্দুল কাদেরের বাড়িতে অভিযান চালায়। এসময় নারী-শিশুসহ ২০জন মালয়েশিয়াগামী রোহিঙ্গা নাগরিককে আটক করে পুলিশ।


আটককৃতরা হচ্ছে, বালুখালী ক্যাম্পের হামিদা বেগম (২০), তার মেয়ে শউকত আরা (৫), থাইংখালী ক্যাম্পের জুবাইদা (২৫) তার মেয়ে রেনেছা (৫), একই ক্যাম্পের হামিদা বেগম (২০), কুতুপালং ক্যাম্পের তাহমিনা বেগম (১৮), বালুখালী ক্যাম্পের শারমিন আকতার (১৬), কুতুপালং ক্যাম্পের ইয়াছমিন আকতার (১৮), তাজনিমারখোলা ক্যাম্পের মোঃ আমিন (২০), বালুখালী ক্যাম্পের ফয়েজুল ইসলাম (১৫), তাজনিমারখোলা ক্যাম্পের নুর কামাল (২৪), বালুখালী ক্যাম্পের মোঃ ইউনুছ (১৯), তাজনিমারখোলা ক্যাম্পের শফি আলম (২৫), বালুখালী ক্যাম্পের হেদায়েত উল্লাহ (১৫), কুতুপালং ক্যাম্পের ছলিমুল্লাহ (১৯), ইমাম হোসেন (২০), জাহিদ উল্লাহ (২৮), ছানা উল্লাহ (২০), লম্বাশিয়া ক্যাম্পের মোঃ আমিন (২০) ও বান্দরবান লামা দুলাহাজারা গ্রামের আব্দুর রহিম (২০)।


আটককৃত কয়েকজন রোহিঙ্গার সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, ২০১২ সালের দিকে তাদের নিকট আত্মীয়রা সাগরপথে মালয়েশিয়া চলে গেছে। বর্তমানে তারা সেখানে বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি কাজে নিয়োজিত। তারা সুখে জীবন যাপন করছে। তারা মুঠোফোনে বারবার তাগিদ দেওয়ার কারণে বিকাশে টাকার লেনদেন করে ডেইলপাড়া গ্রামের লেং শামশুর ছেলে দালাল শাহজান, হিজোলীয়া গ্রামের জলু আহম্মদের ছেলে নুরুল্লাহর মাধ্যমে মালয়েশিয়া যাওয়ার জন্য আব্দুল কাদেরের বাড়িতে ৪-৫ দিন ধরে অবস্থান করছে।


উখিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আবুল খায়ের জানান, এ ঘটনায় শাহজান এবং নুরু উল্লাহসহ ৮ জনকে অজ্ঞাতনামা আসামি করে উখিয়া মানবপাচার আইনে একটি মামলা রুজু করা হয়েছে। যার নং-৯, তারিখঃ ৭/২/২০১৯।