ঢাকা, , শনিবার, ৮ জুন ২০১৯

নবনির্বাচিত সংসদ সদস্যরা শপথ নেবেন আগামীকাল

প্রকাশ: ২০১৯-০১-০২ ১৮:৩০:১৬ || আপডেট: ২০১৯-০১-০৩ ১৯:৫৯:১২

অনলাইন ডেক্স:

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ২৯৮ আসনে নব-নির্বাচিত সংসদ সদস্যরা শপথ নেবেন আগামীকাল বৃহস্পতিবার। বেলা ১১টায় জাতীয় সংসদের শপথ কক্ষে স্পিকার ড. শিরিন শারমীন চৌধুরী তাদের শপথবাক্য পাঠ করাবেন। শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানে সংসদ সচিবালয়ে পুরোদমে প্রস্তুতি শুরু করেছে। কক্ষের ধারণ ক্ষমতা কম হওয়ায় সেখানে দুই দফায় শপথ হবে বলে সংসদ সচিবালয় সূত্রে জানা গেছে।

আজ বুধবার সংসদ সচিবালয়ের উপ-সচিব মর্যাদার এক কর্মকর্তা জানান, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ফলাফলের গেজেট জাতীয় সংসদে পৌঁছেছে। এটি ১ জানুয়ারি স্বাক্ষরিত। আগামীকাল বৃহস্পতিবার (৩ জানুয়ারি) বেলা ১১টার দিকে সংসদ সদস্যদের শপথ অনুষ্ঠিত হবে।

এর আগে সকালে নির্বাচন কমিশন সচিব হেলালুদ্দীন আহমেদ বলেন, এরইমধ্যে বিজয়ী ২৯৮ জনের নামের গেজেট সংসদ সচিবালয়ে পাঠানো হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, ‘গেজেট পাবলিকেশনের তিন দিনে মধ্যে নবনির্বাচিত সংসদ সদস্যরা শপথ গ্রহণ করবেন। এরপরে ৩০ দিনের মধ্যে নতুন সংসদের বৈঠক হবে। এরপরে ৯০ দিনের মধ্যে যদি কেউ শপথগ্রহণ না করেন বা কোনো প্রকাশ রেসপন্স না করেন তখন সংসদ সচিবালয় থেকেই এ পদটি শূন্য ঘোষণা করা হবে।’

গতকাল মঙ্গলবার একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নবনির্বাচিতদের ফলাফল গেজেট আকারে প্রকাশিত হয়।

সংসদ নির্বাচনের ফল গেজেট আকারে প্রকাশের তিনদিনের মধ্যে শপথের সাংবিধানিক বাধ্যবাধকতা রয়েছে। এরপর ৩০ দিনের মধ্যে অধিবেশন ডাকতে হবে।

একাদশ সংসদের প্রথম অধিবেশন শুরুর ৯০ দিনের মধ্যে জাতীয় সংসদের স্পিকারকে অবহিত না করলে বা শপথ না নিলে সদস্যপদ খারিজ হয়ে যাবে।

শপথ পড়ানোর বিষয়ে সংবিধানে ১৪৮ এর ২(ক) ১২৩ অনুচ্ছেদে বলা হয়েছে, ‘সংসদ সদস্যদের সাধারণ নির্বাচনের ফলাফল সরকারি গেজেটে প্রজ্ঞাপিত হইবার তারিখ হইতে পরবর্তী তিন দিনের মধ্যে এই সংবিধানের অধীন এতদুদ্দেশ্যে নির্দিষ্ট ব্যক্তি বা তদুদ্দেশ্যে অনুরূপ ব্যক্তি কর্তৃক নির্ধারিত অন্য কোনো ব্যক্তি যে কোনো কারণে নির্বাচিত সদস্যদের শপথ পাঠ পরিচালনা করিতে ব্যর্থ হইলে বা না করিলে, প্রধান নির্বাচন কমিশনার উহার পরবর্তী তিন দিনের মধ্যে উক্ত শপথ পাঠ পরিচালনা করিবেন, যেন এই সংবিধানের অধীন তিনিই ইহার জন্য নির্দিষ্ট ব্যক্তি’।