ঢাকা, , বুধবার, ২৩ জানুয়ারী ২০১৯

জীর্ণগৃহে এবারও জেএসসিতে শতভাগ পাশ করেছে রুমখাঁপালং উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা

প্রকাশ: ২০১৮-১২-২৫ ২১:৪৬:১২ || আপডেট: ২০১৮-১২-২৫ ২২:০৫:৫৫

পলাশ বড়ুয়া::
জীর্ণগৃহে এবারও জেএসসি পরীক্ষায় শতভাগ পাশের গৌরব অর্জন করেছে রুমখাঁপালং উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। উখিয়া উপজেলার হলদিয়াপালং ও রত্নাপালং ইউনিয়নের সীমানায় প্রান্তিক জনপদে ১৯৯২সালে অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক পুলিন বিহারী বড়ুয়া বিদ্যালয়টি প্রতিষ্টা করেন। স্বীকৃতিপ্রাপ্ত হলেও অদ্যবধি এমপিওভুক্ত হয়নি প্রতিষ্ঠানটি।

২০১৮ সালে জেএসসিতে ১৫০জন শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশ নিয়ে শতভাগ পাশ করেছে সিএসবি’কে এমনটি জানিয়েছেন প্রধানশিক্ষক নুরুল আমিন।

তিনি আরও বলেন, বিগত ২০১৩, ২০১৪, ২০১৫, ২০১৬, ২০১৭ সালেও বৃত্তি সহ শতভাগ পাশ করে শিক্ষার্থীরা।

সাফল্যের পেছনে জানা গেছে, বিদ্যালয়টি ১৯৯২সালে বর্তমান পরিচালনা কমিটির সভাপতি পালং আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রাক্তন সহকারী শিক্ষক পুলিন বিহারী বড়ুয়া’র একক প্রচেষ্টায় বিদেশী দাতা সংস্থা ওয়ার্ল্ড ভিশন ও এলাকাবাসীর সহযোগিতায় প্রতিষ্ঠা করলেও ২০০৭পর্যন্ত অনুমোদিত পরিচালনা কমিটি না থাকায় পিছিয়ে ছিল বিদ্যালয়টি। পরবর্তীতে বর্তমান প্রধান শিক্ষক নুরুল আমিন যোগদানের পর তৎকালীন ইউএনও আহমদ শামীম আল রাজিকে সভাপতি করে প্রথম অনুমোদিত কমিটি গঠন এবং শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তি চালু হয়।

নামমাত্র বেতনে ১০জন শিক্ষকের নিরলস প্রচেষ্টায় জেএসসি ও এসএসসি পরীক্ষা ফলাফলে সাফল্যের ধারাবাহিকতা বজায় রেখেছেন।

২০১০সালে একাডেমিক স্বীকৃতি প্রাপ্ত উপজেলার একমাত্র নন-এমপিও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হিসেবে শিক্ষা কার্যক্রম অব্যাহত থাকলেও নানা সমস্যায় জর্জরিত বিদ্যালয়টি।

নানা প্রতিকুলতার মধ্য দিয়ে রুমখাঁ পালং উচ্চ বিদ্যালয়ের এ সাফল্যের জন্য প্রধান শিক্ষক নুরুল আমিন শিক্ষকমন্ডলী ও সংশ্লিষ্ট অভিভাবকদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন। একই সাথে ভবিষ্যতেও শিক্ষার্থীরা যেন ভালো ফলাফল করতে পারে সে জন্য সকলের সহযোগিতা কামনা করেছেন।